এই নিবন্ধের জন্য GPX ফাইল ডাউনলোড করুন

এশিয়া > দক্ষিণ এশিয়া > বাংলাদেশ > খুলনা বিভাগ > সাতক্ষীরা জেলা > সাতক্ষীরা সদর উপজেলা

সাতক্ষীরা সদর উপজেলা

উইকিভ্রমণ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন


সাতক্ষীরা সদর উপজেলা বাংলাদেশের সাতক্ষীরা জেলার অন্তর্গত একটি প্রশাসনিক এলাকা। ৪০০.৮২ বর্গ কিমি আয়তনের এই উপজেলাটি ২২°৩৭´ উত্তর অক্ষাংশ থেকে ২২°৫০´ উত্তর অক্ষাংশের এবং ৮৮°৫৫´ পূর্ব দ্রাঘিমা থেকে ৮৯°১০´ পূর্ব দ্রাঘিমাংশের মধ্যে অবস্থিত, যার উত্তরে কলারোয়া উপজেলা; দক্ষিণে দেবহাটাআশাশুনি উপজেলা; পূর্বে তালা উপজেলা এবং পশ্চিমে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য।

কিভাবে যাবেন?[সম্পাদনা]

রাজধানী ঢাকা থেকে উপজেলা সদরের দূরত্ব ২৪০ কিলোমিটার। এই জেলাটি একটি উপকূলী অঞ্চল। এখানে সড়ক আসাতে হয়। তবে, রেল যোগাযোগ বা বিমান বন্দর নেই বলে এই দুটি মাধ্যমে এখানকার কোনো স্থানে আসা যায় না।

আকাশপথ[সম্পাদনা]

এখানে কোন বিমানবন্দর না থাকায় সরাসরি আকাশপথে ভ্রমণ সম্ভব নয়। তবে ঢাকা থেকে পার্শ্ববর্তী জেলা যশোর বিমান বন্দরের নেমে ভাড়ায় চালিত গাড়ীতে তুলনামুলক স্বল্প সময়ে পৌছানো সম্ভব।

সড়কপথ[সম্পাদনা]

রাজধানী শহরের সংগে সরাসরি বাস যোগাযোগ আছে। আন্তঃজেলা বাস যোগাযোগব্যবস্থা আছে। ঢাকা থেকে সাতক্ষীরা সাধারনত সড়ক পথেই যাতায়েত করা হয়ে থাকে। ঢাকা থেকে সাতক্ষীরা জেলায় সড়ক পথে যাতায়েত করতে সময় লাগে ৭ থেকে ৮ ঘন্টা, তবে ফেরী পারাপারের সময় যানজট থাকলে সময় বেশী লাগে। গাবতলী ও সায়েদাবাদ টার্মিনাল থেকে বেশ কয়েকটি বাস সাতক্ষীরার উদ্দেশ্য ছেড়ে যায়। এ সব বাস গুলোর মধ্যে পর্যটক পরিবহন, ঈগল পরিবহন, দিগন্ত পরিবহন, হানিফ এন্টারপ্রাইজ, সুন্দরবন সার্ভিস প্রা: লি: দ্রুতি পরিবহন, আরা পরিবহন ও সোহাগ পরিবহন অন্যতম। সাতক্ষীরা ও খুলনা রুটের অনেক গাড়ী লঞ্চে যাত্রী পারাপার করে থাকে। লঞ্চে যাতায়াত করলে সময় ও অর্থ দুটোই কম লাগে।

নৌপথ[সম্পাদনা]

পার্শ্ববর্তী উপকূলীয় এলাকা হতে রৌপথে যোগাযোগ রয়েছে।

দর্শনীয় স্থানসমূহ[সম্পাদনা]

  1. মোজাফফর গার্ডেন এন্ড রিসোর্ট,
  2. সাতক্ষীরা পঞ্চমন্দির (অন্নণপূর্ণা মন্দির, কালীমন্দির, শিবমন্দির, কালভৈরব মন্দির ও রাধা-গোবিন্দ মন্দির),
  3. সুলতানপুর শাহী মসজিদ,
  4. জমিদার বাড়ি জামে মসজিদ (লাবসা),
  5. চম্পা মায়ের মাযার,
  6. বৈকারী শাহী মসজিদ ও হোজরাখানা (১৫৯৪ খ্রি.),
  7. ঝাউডাঙ্গা তহসীল অফিস,
  8. শ্রী শ্রী জগন্নাথ দেবের মন্দির,
  9. ছয়ঘরিয়া জোড়া শিব মন্দির ।

খাওয়া দাওয়া[সম্পাদনা]

সাতক্ষীরা চিংড়ি চাষের জন্য বিখ্যাত।

রাত্রী যাপন[সম্পাদনা]

রাত্রী যাপনের জন্যে সাতক্ষীরায় বেশকিছু ভাল মানের আবাসিক হোটেল রয়েছে।

হোটেল সীমান্ত মোঃ মুজিবর রহমান ০১৮১৬২৭৫৭৬২
হোটেল সম্রাট প্লাজা মোঃ বশির আহমেদ ০১৭৬৮৯৬৪৯৭১
সংগ্রাম আবাসিক হোটেল মোঃ বশির আহমেদ ০১৭১২৯২৯৪৯৫, ০৪৭১-৬৩৫৫১
হোটেল মোজাফফার গার্ডেন এণ্ড রিসোর্ট কে এম খায়রুল মোজাফফার (মন্টু) ০১৭১৯৭৬৯০০৯
হোটেল হাসান মোঃ আব্দুল বারি ০১৭৪০৬৫০৫০২
হোটেল আল-কাশেম ইন্টারন্যাশনাল মোঃ তাহমিদ সাহেদ চয়ন ০৪৭১-৬৪৪২২, ০১১৯০৯৪৯৮০২
পাতাল হোটেল জি,এম আব্দুর রহমান ০১৮২৩৬৪৭৪৬২
সাতক্ষীরা আবাসিক হোটেল মোঃ আব্দুল গফুর গাজী ০১৭১৮৪০৫০১৩
হোটেল টাইগার প্লাস মীর তাজুল ইসলাম ০১৭৭৪৯৯৯০০০,০৪৭১-৬৪৭৮৪
পদ্মা আবাসিক হোটেল মোঃ বেল্লাল হোসেন ০১৯১৬১১৯৩৭৪

জরুরী নম্বরসমূহ[সম্পাদনা]

জননিরাপত্তা সম্পর্কিত যোগাযোগের জন্য
  • ওসি, সাতক্ষীরা সদরঃ মোবাইলঃ ০১৭১৩-৩৭৪ ১৪১।