উইকিভ্রমণ থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন

খানসামা উপজেলা বাংলাদেশের একটি প্রশাসনিক এলাকা যা রংপুর বিভাগের দিনাজপুর জেলার অন্তর্ভূক্ত। খানসামা উপজেলা ২৫°৪৭´ উত্তর অক্ষাংশ হতে ২৬°০১´ উত্তর অক্ষাংশের এবং ৮৮°৪২´ পূর্ব দ্রাঘিমা হতে ৮৮°৫১´ পূর্ব দ্রাঘিমাংশের মধ্যে অবস্থিত। ১৭৯.৭২ বর্গ কিমি আয়তনের এই উপজেলাটির উত্তরে দেবীগঞ্জনীলফামারী সদর উপজেলা; দক্ষিণে চিরিরবন্দরদিনাজপুর সদর উপজেলা; পূর্বে নীলফামারী সদর উপজেলা এবং পশ্চিমে কাহারোলবীরগঞ্জ উপজেলা অবস্থিত।

কিভাবে যাবেন?[সম্পাদনা]

দেশের যেকোন স্থান হতে খানসামা উপজেলায় সরাসরি আসতে হলে কেবলমাত্র সড়কপথে আসতে হয়; রেলপথ, আকাশপথ বা জলপথে এখানে সরাসরি আসার কোনো ব্যবস্থা এখনও গড়ে ওঠেনি। খানসামায় কোনো রেলপথ নেই বিধায় রেলে করে আসা সম্ভব নয়। দিনাজপুর জেলায় কোনো বিমানবন্দর না-থাকায় এবং নাব্যতা ও বড় নদ-নদী না-থাকায় এ অঞ্চলের সাথে দেশের অন্যান্য অঞ্চলের আকাশপথে বা নৌ-পথে কোনো যোগাযোগ ব্যবস্থা গড়ে ওঠেনি।

স্থল পথে[সম্পাদনা]

সড়ক পথে ঢাকা হতে কাহারোলে উপজেলার দূরত্ব ৩৯৩ কিলোমিটার। উপজেলা সদরদপ্তরটি জেলা শহর দিনাজপুর হতে ৪৯ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত।

আকাশ পথে[সম্পাদনা]

খানসামা উপজেলায় কোনো বিমানবন্দর না-থাকায় এখানে সরাসরি আকাশ পথে আসা যায় না, তবে ঢাকা থেকে সরাসরি বিমান যোগাযোগ ব্যবস্থা রয়েছে সৈয়দপুর বিমানবন্দরের সাথে; ঢাকা থেকে সৈয়দপুর এসে সেখান থেকে সড়কপথে খানসামা উপজেলায় আসা যায়। বাংলাদেশ বিমান, জেট এয়ার, নোভো এয়ার, রিজেন্ট এয়ার, ইউনাইটেড এয়ার - প্রভৃতি বিমান সংস্থার বিমান পরিষেবা রয়েছে ঢাকা থেকে সৈয়দপুর আসার জন্য।

বাংলাদেশ বিমানের একটি করে ফ্লাইট সপ্তাহে ৪ দিন ঢাকা-সৈয়দপুর ও সৈয়দপুর-ঢাকা রুটে চলাচল করে; ভাড়া লাগবে একপথে ৩,০০০/- এবং রিটার্ণ টিকিট ৬,০০০/-। সময়সূচী হলোঃ

  • ঢাকা হতে সৈয়দপুর - শনি, রবি, মঙ্গল, বৃহস্পতি - দুপুর ০২ টা ২০ মিনিট;
  • সৈয়দপুর হতে ঢাকা - শনি, রবি, মঙ্গল, বৃহস্পতি - দুপুর ০৩ টা ৩৫ মিনিট।

এই সম্পর্কিত তথ্যের জন্য যোগাযোগ করতে পারেনঃ

    • ম্যানেজার, সৈয়দপুর বিমান বন্দর, মোবাইল - ০১৫৫৬-৩৮৩ ৩৪৯।

জল পথে[সম্পাদনা]

অপ্রচলিত মাধ্যম হিসাবে নৌপথ ব্যবহৃত হয়ে থাকে; তবে কেবলমাত্র স্থানীয় পর্যায় ছাড়া অন্য কোনো এলাকার সাথে, কিংবা ঢাকা থেকে বা অন্যান্য বড় শহর হতে সরাসরি কোনো নৌযান চলাচল করে না। অবশ্য, চরাঞ্চলে যোগাযোগের একমাত্র বাহন নৌযান।

খাওয়া দাওয়া[সম্পাদনা]

‘সিদল ভর্তা’ এখানকার জনপ্রিয় খাবার, যা কয়েক ধরনের শুঁটকির সঙ্গে নানা ধরনের মসলা মিশিয়ে বেটে তৈরি করা হয়। এছাড়াও রয়েছে বিখ্যাত লিচু, “হাড়িভাঙ্গা” আম, বাদাম, তামাক ও আখ। এখানে সাধারণভাবে দৈনন্দিন খাওয়া-দাওয়ার জন্য স্থানীয় হোটেল ও রেস্টুরেন্টগুলোতে সুস্বাদু খাবার পাওয়া যায়।

থাকা ও রাত্রী যাপনের স্থান[সম্পাদনা]

খানসামায় থাকার জন্য স্থানীয় পর্যায়ের কিছু সাধারণ মানের আবাসিক হোটেল রয়েছে। এছাড়াও সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় থাকার জন্য উন্নতমানের আবাসন সুবিধা পাওয়া যায় -

  • সার্কিট হাউজ, দিনাজপুর, ☎ ০৫৩১-৬৩১১২;
  • জেলা পরিষদ ডাক বাংলো, কাহারোল, দিনাজপুর।

জরুরি নম্বরসমূহ[সম্পাদনা]

জননিরাপত্তা সম্পর্কিত যোগাযোগের জন্য
  • পুলিশ সুপার দিনাজপুর, মোবাইল: ০১৭১৩-৩৭৩ ৯৫৫;
  • অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) দিনাজপুর, মোবাইল: ০১৭১৩-৩৭৩ ৯৫৬;
  • অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) দিনাজপুর, মোবাইল: ০১৭১৩-৩৭৩ ৯৫৭;
  • অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) দিনাজপুর, মোবাইল: ০১৭১৩-৩৭৩ ৯৫৮;
  • ওসি দিনাজপুর, মোবাইল: ০১৭১৩-৩৭৩ ৯৬৩;
  • ওসি খানসামা, মোবাইল: ০১৭১৩-৩৭৩ ৯৬৯।