উইকিভ্রমণ থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন

একসময় ফেনী নদীকে বলা হতো ফেনীর দুঃখ। প্রতিবছর বন্যায় ভেসে যেত কৃষকের কষ্টের ফষল। তৎকালীন সরকারি উদ্যোগে এবং জাপানের সহযোগিতায় প্রথম ১৯৭৭-৭৮ অর্থ বছরে প্রকল্পটি শুরু হয় এবং ১৯৮৫-৮৬ অর্থ বছরে এই সেচ প্রকল্পের নির্মাণ কাজ শেষ হয়। সোনাগাজীতে অবস্থিত এটি দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম সেচ প্রকল্প। সিডা, ইইসি, বিশ্বব্যাংকের অর্থ সহায়তায় জাপানের সিমুজু কোম্পানী ১শ ৬৮ কোটি টাকা ব্যয়ে এই সেচ প্রকল্প নির্মাণ করে। এই প্রকল্প চালু হওয়ার পর ২০,১৯৪ হেক্টর এলাকায় সেচ সুবিধা এবং ২৭,১২৫ হেক্টর এলাকা সম্পুরক সেচ সুবিধার আওতায় আসে। বর্তমানে মুহুরী সেচ প্রকল্পকে ঘিরে গড়ে ওঠেছে বিনোদন ও পিকনিক স্পট। মুহুরীর জলরাশিতে নৌভ্রমণের সময় খুব কাছ থেকে বিভিন্ন প্রজাতির হাঁস এবং প্রায় ৫০ জাতের হাজার হাজার পাখির দেখা পাওয়া যায়। বিশ্বের বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে এই প্রকল্পের কথা স্থান পেয়েছে।

কিভাবে যাবেন[সম্পাদনা]

কোথায় থাকবেন[সম্পাদনা]

খাওয়া-দাওয়া[সম্পাদনা]

কী দেখবেন[সম্পাদনা]