উইকিভ্রমণ থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন

বীরগঞ্জ জাতীয় উদ্যান বাংলাদেশের একটি দর্শনীয় স্থান, যা দিনাজপুর জেলার অন্তর্গত। এটি দেশের রাজধানী ঢাকা হতে ২২৫ কিমি উত্তরে অবস্থিত, যা জাতীয় উদ্যান হিসাবে ঘোষিত হয় ২০১১ সালে। ১৬৮.৫৬ হেক্টর জমি নিয়ে এই জাতীয় উদ্যানটি গঠিত।

বিশেষত্ব[সম্পাদনা]

বীরগঞ্জ জাতীয় উদ্যান বাংলাদেশের অন্যতম সংরক্ষিত এলাকা যা দিনাজপুর জেলার বীরগঞ্জ উপজেলার আওতাভূক্ত। এটি জেলা সদর হতে প্রায় ৭০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। এটি মূলতঃ শাল প্রকৃতির বৃক্ষের বন, যার পাশ দিয়ে ঢেপা নদী বয়ে গেছে।

বীরগঞ্জ জাতীয় উদ্যানে বিভিন্ন প্রজাতির বৃক্ষ যেমন শাল, বেত, বাশ, শিমুল, শিশু, সোনালু দেখতে পাওয়া যায়। তবে শাল হচ্ছে এই জঙ্গলের প্রধান বৃক্ষ। এছাড়া এই উদ্যানে বিভিন্ন প্রজাতির পাখি, সাপ, স্বরীসৃপ ইত্যাদি রয়েছে।

কীভাবে যাবেন[সম্পাদনা]

রাজধানী ঢাকা থেকে বীরগঞ্জ উপজেলার দূরত্ব ২২৫ কিলোমিটার এবং জেলা সদর দিনাজপুর থেকে দূরত্ব ৭০ কিলোমিটার। দিনাজপুর জেলাটি একটি সমভূমি অঞ্চল হওয়ায় এখানকার যেকোনো স্থানে আসার জন্য সড়কপথ সবচেয়ে সুবিধাজনক পরিবহন ব্যবস্থা। তবে, রেল পথেও এখানে আসা সম্ভব। তবে, নৌ এবং বিমান পথে এখানে সরাসরি পৌছানোর কোনো সুযোগ এখনও গড়ে ওঠেনি।

ঢাকার গাবতলী-কল্যাণপুর ও মহাখালী থেকে দিনাজপুরগামী বাসগুলি ছেড়ে যায়। বাস সার্ভিসের মধ্যে রয়েছে নাবিল পরিবহন, এস আর ট্রাভেলস, এস এ পরিবহন, হানিফ এন্টারপ্রাইজ, শ্যামলী পরিবহন ইত্যাদি।

ঢাকা থেকে দিনাজপুর রেলে যেতে প্রায় ১০ ঘণ্টা লাগে। একতা এক্সপ্রেস ঢাকা থেকে ছাড়ে সকাল ১০ টায় এবং দিনাজপুর থেকে রাত ৯ টা ২০ মিনিটে আর দ্রুতযান ঢাকা থেকে ছাড়ে সন্ধ্যা ৭ টা ৪০ মিনিট এবং দিনাজপুর থেকে সকাল ৭ টা ৪০ মিনিটে।

ঢাকা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে সৈয়দপুর বিমানবন্দরে নেমে বাস করে সেখান থেকে যাওয়া যায়।

ঘুরে দেখুন[সম্পাদনা]

নিকটবর্তী দর্শনীয় স্থানগুলো ঘুরে বেড়াতে পারেন; এগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্যগুলো হলো -

কোথায় থাকবেন[সম্পাদনা]

দিনাজপুর থাকার জন্য স্থানীয় পর্যায়ের কিছু সাধারণ মানের হোটেল রয়েছে। দিনাজপুর শহরে ভাল মানের হোটেলে থাকতে চাইলে পর্যটন মোটেলে থাকা যাবে। সাধারণ মানের আবাসিক হোটেলের মধ্যে রয়েছে হোটেল ডায়মন্ড, নিউ হোটেল, হোটেল আল রশিদ, হোটেল রেহানা, হোটেল নবীন, ইত্যাদি। এছাড়া রামসাগরে অবস্থিত স্থানীয় বন বিভাগের বাংলোতে জেলা পরিষদের অনুমতি নিয়ে থাকা যায়। এছাড়াও রয়েছে সরকারি ব্যবস্থাপনায় থাকার জন্যে রয়েছে উন্নতমানের -

  1. জেলা পরিষদ ডাকবাংলো - দিনাজপুর।

খাওয়া দাওয়া[সম্পাদনা]

দিনাজপুর খাবারের জন্য বেশ কিছু স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান রয়েছে যেখানে সুস্বাদু খাবার পাওয়া যায়। এগুলোর মধ্যে রয়েছেঃ

  • খাবার ঘর;
  • রুচিতা;
  • আনন্দ রেস্তোরা;
  • বনফুল এন্ড কোং।

যেকোনো সমস্যায় যোগাযোগ করতে পারেন -

জননিরাপত্তা সম্পর্কিত যোগাযোগের জন্য
  • ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা, বীরগঞ্জ থানা; মোবাইল: ০১৭১৩-৩৭৩ ৯৬৭।

বিষয়শ্রেণী তৈরি করুন