উইকিভ্রমণ থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন

ডিম পাহাড় বান্দরবান জেলার আলীকদম এবং থানচি উপজেলার ঠিক মাঝখানে অবস্থিত, এই পাহাড় দিয়েই দুই উপজেলার সীমানা নির্ধারিত হয়েছে। এই পাহাড়ের মধ্যে দিয়ে সমুদ্র সমতল থেকে আড়াই হাজার ফুট উঁচুতে নির্মাণ করা হয়েছে বাংলাদেশের সবচেয়ে উঁচু সড়কপথ। আড়াই হাজার ফুট উঁচু এ পাহাড় চূড়ার আকৃতি দেখতে ডিমের মতো হওয়ায় স্থানীয়রা একে ডিম পাহাড় নামেই চেনে।

যেভাবে যাবেন[সম্পাদনা]

ঢাকা-চট্টগ্রাম কিংবা কক্সবাজার থেকে বাস করে চকরিয়া বাস স্টেশন নামতে হবে। চকরিয়া থেকে বাসে বা জিপে করে আলীকদম যেতে হবে। ভাড়া পড়বে জিপে জন প্রতি ৭০ টাকা এবং বাসে ৫০ টাকা। আলীকদম বাস ষ্টেশনে থেকে জীপ গাড়ি ভাড়া নেয়া যায়। অথবা সেখান থেকে অটো রিক্সায় পানবাজার এসে ভাড়ায় চালিত মোটর বাইক নিয়ে ডিম পাহাড় যাওয়া যায়। বাইকে ভাড়া পড়বে ৫০০ টাকা। ডিম পাহাড় ঘুরে ১০/১২ কিলোমিটার পাহাড়ি পথ পাড়ি দিলেই পৌঁছা যায় থানচি। বান্দরবান থেকে যেতে চাইলে আগে লোকাল বাসে কিংবা চান্দের গাড়িতে করে থানচি বাজার যেতে হবে। এরপর থানচি বাজার থেকে চান্দের গাড়ি কিংবা মোটরবাইকে করে ডিম পাহাড়।

রাত্রিযাপন[সম্পাদনা]

থানচি বা আলীকদমে রাত্রিযাপনের ব্যবস্থা আছে।

  • 1 দ্যা দামতুয়া ইন, আলীকদম উপজেলা সড়ক, +৮৮ ০১৭৪৮ ৯১২১২৭, ইমেইল: আগমন: ১২.০০, প্রস্থান: ১১.০০নন এসি ঘর, গাড়ি পার্কিং ও কফারেন্সের সুবিধা এবং হোটেল সংলগ্ন রেস্তোরা রয়েছে Linecons banknote.svg ৳১,০০০
  • 2 দি হোটেল ডিসকভারি থানচি, থানচি, +৮৮০ ১৮৮০ ০০৬৩৫৩, ইমেইল: Linecons banknote.svg ৳২,৫০০-৫,০০০

আহার[সম্পাদনা]

ডিম পাহারের আশেপাশে কোন রেস্তোরা নেই। রেস্তোরা খেতে চাইলে আলিকদম বা থানচি যেতে হবে।