এই নিবন্ধের জন্য GPX ফাইল ডাউনলোড করুন

এশিয়া > দক্ষিণ এশিয়া > বাংলাদেশ > রাজশাহী বিভাগ > নওগাঁ জেলা

নওগাঁ জেলা

উইকিভ্রমণ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

নঁওগা জেলা বাংলাদেশের একটি জেলা যা রাজশাহী বিভাগ এর অন্তর্গত।

কিভাবে যাবেন?[সম্পাদনা]

স্থল পথে[সম্পাদনা]

বাস

ঢাকার গাবতলী এবং মহাখালী বাস টার্মিনাল থেকে নওগাঁ যাবার জন্য এসি-ননএসি বাস আছে। এর মধ্যে এসআর পরিবহন, শ্যামলী পরিবহন, হানিফ এন্টারপ্রাইজ, শাহ ফতেহ আলী পরিবহন উল্লেখযোগ্য।

  • শ্যামলী পরিবহন, ☎ ০২-৯০০৩৩৩১, ০২-৭৫২০৪০৫
  • এসআর ট্রাভেলস, ☎ ০২-৮০১৩৭৯৩, ০২-৮০৬০৮৭৬
  • শাহ ফতেহ আলী পরিবহন, ☎ ০১৭১১০২০৬২৬
  • হানিফ এন্টারপ্রাইজ
রেল

নওগাঁ সদরের সাথে সরাসরি কোন রেল যোগাযোগের ব্যবস্থা নেই। তবে নওগাঁ শহরের অদূরেই শান্তাহার রেল জংশন অবস্থিত। শান্তাহার পর্যন্ত রেলে গিয়ে, সেখান থেকে খুব সহজেই অটো রিকশা বা অন্য কোন বাহনে যাওয়া যায়। শান্তাহার থেকে নওগাঁ শহরের দূরত্ব প্রায় ৭ কিঃ মিঃ। ঢাকা থেকে শান্তাহার প্রতিদিন ৫ টি রেলগাড়ি যাওয়া আসা করে। ট্রেনের সময়সূচীঃ

ট্রেন নং নাম বন্ধের দিন হইতে ছাড়ে গন্তব্য
৭০৫ একতা এক্সপ্রেস মঙ্গলবার ঢাকা ১০০০ দিনাজপুর
৭৫১ লালমনি এক্সপ্রেস শুক্রবার ঢাকা ২২১০ লালমনিরহাট
৭৫৭ দ্রুতযান এক্সপ্রেস বুধবার ঢাকা ২০০০ দিনাজপুর
৭৬৫ নীলসাগর এক্সপ্রেস সোমবার ঢাকা ০৮০০ চিলাহাটি
৭৭১ রংপুর এক্সপ্রেস রবিবার ঢাকা ০৯০০ রংপুর

আকাশ পথে[সম্পাদনা]

নওগাঁ হতে প্রায় ৭০ কিঃমিঃ উত্তরে রাজশাহীতে 'শাহ মখদুম বিমানবন্দর' অবস্থিত। এখানে রাজশাহী-ঢাকা-রাজশাহী রুটে উড়োজাহাজ চলাচল করে। রাজশাহী থেকে বাস যোগে নওগাঁ যেতে প্রায় ২ ঘন্টা সময় লাগে।

দর্শনীয় স্থান[সম্পাদনা]

পাহাড়পুর বৌদ্ধ বিহার
পাহাড়পুর বৌদ্ধবিহার

পাহাড়পুর বৌদ্ধবিহার বা সোমপুর বিহার বা সোমপুর মহাবিহার নওগাঁ জেলার বদলগাছি উপজেলার পাহাড়পুর গ্রামে অবস্থিত। পালবংশের দ্বিতীয় রাজা শ্রী ধর্মপাল দেব (৭৮১-৮২১) অষ্টম শতকের শেষের দিকে বা নবম শতকে এই বিহার তৈরি করছিলেন। ১৮৭৯ খ্রিস্টাব্দে স্যার আলেকজান্ডার কানিংহাম এই বিশাল স্থাপনা আবিষ্কার করেন। পাহাড়পুরকে পৃথিবীর সবচেয়ে বড় বৌদ্ধবিহার বলা হয়।

কুসুম্বা মসজিদ

কুসুম্বা মসজিদ আত্রাই নদীর পশ্চিম তীরে নওগাঁ জেলার মান্দা থানার কুসুম্বা গ্রামের একটি প্রাচীন মসজিদ। কুসুম্বা দিঘির পশ্চিম পাড়ে, পাথরের তৈরি ধুসর বর্ণের মসজিদটি অবস্থিত। আফগানী শাসনামলের শুর বংশে শেষদিকের শাসক গিয়াসউদ্দিন বাহাদুর শাহের আমলে সুলায়মান নামে একজন এই মসজিদটি নির্মাণ করেছিলেন।

আলতাদীঘি

ধামইর হাট উপজেলা সদর থেকে প্রায় ৫ কিঃমিঃ উত্তরে এর অবস্থান।

খাওয়া দাওয়া[সম্পাদনা]

নওগাঁতে কোন বিখ্যাত খাবারের দোকান নেই। এখানকার মিষ্টান্ন ও দই বেশ সুস্বাদু।

পরবর্তিতে যান[সম্পাদনা]