উইকিভ্রমণ থেকে
এশিয়া > দক্ষিণ এশিয়া > বাংলাদেশ > বরিশাল বিভাগ > বরগুনা জেলা > শুভ সন্ধ্যা সমুদ্র সৈকত

শুভ সন্ধ্যা সমুদ্র সৈকত

পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন

শুভ সন্ধ্যা সমুদ্র সৈকত বাংলাদেশের সর্বদক্ষিণের উপকূলীয় জেলা বরগুনা জেলার তালতলী উপজেলা থেকে প্রায় ১৫ কিলোমিটার দক্ষিণ পশ্চিমে নিশানবাড়িয়া ইউনিয়নের নলবুনিয়া এলাকায় সাড়ে ৪ কিলোমিটার জায়গাজুড়ে খড়স্রোতা পায়রা, বিষখালী ও বলেশ্বর নদীর মোহনায় অবস্থিত।

যেভাবে যাবেন[সম্পাদনা]

সড়ক কিংবা নৌপথে বরগুনায় যেতে পারেন। রাজধানীর গাবতলি ও সায়দাবাদ বাস টার্মিনাল থেকে সাকুরা, মেঘনাসহ বিভিন্ন পরিবহনের বাস বরগুনার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। এছাড়া লোকাল বাসও পাবেন যাতায়াতের জন্য। তবে সময় বাচাতে লোকাল বাসে না যাওয়াই ভালো। নৌপথে যেতে চাইলে আপনাকে সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনাল থেকে লঞ্চে উঠতে হবে। এম ভি যুবরাজ-২, এম ভি নুসরাত সরাসরি ও লোকাল লঞ্চ বিকেল ৫-৬ টার মাঝে বরগুনার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। ডেক ও সিঙ্গেল কেবিনের ভাড়া যথাক্রমে ২৫০ ও ১,০০০ টাকা যা পরিবর্তনশীল। বাস কিংবা লঞ্চে বরগুনায় পৌঁছে সেখান থেকে মোটরসাইকেল বা বাসে শুভ সন্ধ্যা সমুদ্র সৈকতে যেতে পারবেন। 

যেখানে থাকবেন[সম্পাদনা]

বরগুনা শহরে আবাসিক হোটেল বা রেস্ট হাউজগুলোতে রাত্রি যাপন করতে পারেন। রেস্ট হাউজগুলো হচ্ছে জেলা পরিষদ রেস্ট হাউজ, এলজিইডি রেস্ট হাউজ, পানি উন্নয়ন বোর্ড রেস্ট হাউজ, সিয়ারপি রেস্ট হাউজ ইত্যাদি। সাধারণ মানের হোটেলও পাবেন এখানে। হোটেলের মাঝে হোটেল তাজবিন, হোটেল আলম, বসুন্ধরা ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য। তবে ভালো মানের হোটেলের জন্য আপনাকে বরিশাল সদরে আসতে হবে।

যেখানে খাবেন[সম্পাদনা]

নদী-সমুদ্রের তাজা মাছ পাবেন এখানের হোটেলগুলোতে। স্বল্প খরচে মাছ ভাত বা স্থানীয় খাবার খেতে পারবেন। এছাড়াও আপনি আপনার সুবিধামত স্থানীয় হোটেলগুলি থেকে পছন্দমত খাবার খেতে পারবেন।