এই নিবন্ধের জন্য GPX ফাইল ডাউনলোড করুন

এশিয়া > দক্ষিণ এশিয়া > বাংলাদেশ > রাজশাহী বিভাগ > জয়পুরহাট জেলা

জয়পুরহাট জেলা

উইকিভ্রমণ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

জয়পুরহাট জেলা বাংলাদেশের রাজশাহী বিভাের একটি জেলা।

জানুন[সম্পাদনা]

৯৬৫.৪৪ কিলোমিটার আয়তনের এই জেলাটি ২৪°৫১´ এবং ২৫°১৭´ উত্তর অক্ষাংশ এবং ৮৮°১৭´ ও ৮৮°৫৫´ পূর্ব দ্রাঘিমাংশের মাঝে অবস্থিত। এই জেলার উত্তরে দিনাজপুর জেলা, দক্ষিনে নওগাঁ ও বগুড়া জেলা, পূর্বে গাইবান্ধা জেলা এবং পশ্চিমে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য অবস্থিত। এ অঞ্চলে বিভিন্ন আদিবাসী সম্প্রদায় বাস করে যেমন সাঁওতাল, মুন্দা, ওরাঅন, কচরাজবংশি। ১৬শ এবং ১৭শ শতাব্দী পর্যন্ত জয়পুরহাটের ইতিহাস সম্পর্কে কোন তথ্য পাওয়া যায়নি তবে, এই অঞ্চলটি পাল ও সেন রাজবংশের অধীনে ছিল। প্রাচীন আমলে জয়পুরহাটের নাম ছিল বাঘাবাড়ীহাট এবং পরবর্তীতে এই জেলার নাম হয় গোপেন্দ্রগঞ্জহাট। অনেক বলে থাকে পাল সাম্রাজ্যর রাজা জয়পালের নামে এই জেলার নামকরন কর হয় জয়পুরহাট।

কিভাবে যাবেন?[সম্পাদনা]

স্থল পথে[সম্পাদনা]

সড়কপথ এবং রেলপথের সাহায্যে খুব সহজে ঢাকা থেকে জয়পুরহাট যাওয়া যায়। ঢাকা থেকে সরাসরি বাস, ট্রেন আছে। ঢাকা হতে জয়পুরহাটগামী আন্তঃনগর ট্রেনের সময়সূচীঃ

ট্রেন নং নাম বন্ধের দিন হইতে ছাড়ে গন্তব্য
৭৫১ লালমনি এক্সপ্রেস শুক্রবার ঢাকা ২২১০ লালমনিরহাট
৭৭১ রংপুর এক্সপ্রেস রবিবার ঢাকা ০৯০০ রংপুর

আকাশ পথে[সম্পাদনা]

আকাশ পথে যাওয়ার কোন ব্যাবস্থা নেই।

জল পথে[সম্পাদনা]

নদীপথে যাওয়ার সুবিধা নাই প্রশস্ত এবং নাব্য নদীর অভাবে।

দেখুন[সম্পাদনা]

  1. লীলাভুমি পাথরঘাট
  2. লাগর পীর (রঃ) এর মাজার
  3. নিমাই পীরের দরগা
  4. নান্দাইল দীঘি
  5. আছরাঙ্গা দীঘি
  6. লকমা রাজবাড়ি,
  7. শিশু উদ্যান,
  8. বারশিবালয় মন্দির,

খাওয়া দাওয়া[সম্পাদনা]

রাত্রী যাপন[সম্পাদনা]

জয়পুরহাটে থাকার জন্য খুব উন্নত মানের হোটেল নেই।

জরুরী নম্বরসমূহ[সম্পাদনা]